Friday, May 14, 2021
Home করোনার খবর ২৮ দিনে ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ, ১৪ দিনে তৈরি অ্যান্টিবডি, জানালেন এইমস ডিরেক্টর

২৮ দিনে ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ, ১৪ দিনে তৈরি অ্যান্টিবডি, জানালেন এইমস ডিরেক্টর

প্রথম সারির যোদ্ধাদের জন্য বিনমূল্যে টিকাকরণ করা হবে।

 জরুরি ভিত্তিতে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরী করোনার ভ্যাকসিনের ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।তবে তা নিয়ে তৈরী হয়েছে অনেক বিতর্ক।বিতর্কের মধ্যেই স্বাস্থ্য মন্ত্রকের এক ভিডিও বার্তায় এইমস এর ডিরেক্টর রনদীপ গুলেরিয়া বলেন,”প্রথম ডোজ নেওয়ার প্রায় এক মাস পর দ্বিতীয় ডোজ নিতে হবে। দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার ২ সপ্তাহ পর শরীরে তৈরি হবে অ্যান্টিবডি। কিউ-আর কোড যুক্ত সার্টিফিকেট পাঠিয়ে দেওয়া হবে প্রত্যেকের মোবাইল নম্বরে। ভ্যাকসিন নেওয়ার ৩০ মিনিট বিশ্রাম নিতে হবে”।

এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন, কোনও সমস্যা হলে স্থানীয় আশা কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। একইসঙ্গে গুলেরিয়া মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আবেদন জানিয়েছেন।

রনদীপ গুলেরিয়া বলেন, ভিন্ন ভিন্ন ভ্যাকসিন নেওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। একটা টিকার গোটা প্রক্রিয়া শেষ করা বাধ্যতামূলক। তবে কেউ করোনা পজিটিভ হলে ভ্যাকসিন না নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। আক্রান্ত হওয়ার ১৪ দিন পর টিকা করার পরামর্শ দিয়েছেন গুলেরিয়া। কারণ, করোনা পজিটিভ হলে বা উপসর্গ থাকলে ভ্যাকসিন কতটা কার্যকর হবে তা এখনও প্রমাণ হয়নি। করোনা পজিটিভ হলে সংশ্লিষ্ট টিকাকরণ কেন্দ্রে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা বেশি। তিনি বলেন, যারা ইতিমধ্যে করোনা জয় করে সুস্থ হয়ে উঠেছেন, তাঁদের এই ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত।

এইমসের ডিরেক্টরের কথায়, যাদের এক বা একাধিক কো-মর্বিডিটি যেমন ক্যান্সার, ডায়বেটিস, হাইপারটেনশন আছে তাদের অবশ্যই ভ্যাকসিন নেওয়া উচিৎ। তাঁরা যে ওষুধ খেয়ে থাকেন, তার কার্যকারিতায় হস্তক্ষেপ করবে না ভ্যাকসিন। ভ্যাকসিন নিলে কিছু সাধারণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হবে। যেমন, জ্বর, হাতে পায়ে ব্যাথা, অ্যালার্জি হতে পারে। পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের জন্য ইতিমধ্যে বিভিন্ন রাজ্যকে নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে।

এক প্রশ্নের উত্তরে গুলেরিয়া জনিয়েছেন, কাদের প্রথমে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে তা ঠিক করবে সরকার। কত সংখ্যক ভ্যাকসিন আছে এবং কাদের ভ্যকসিন প্রয়োজন তা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেবে সরকার। তিনি জানিয়েছেন, প্রথম সারির যোদ্ধাদের প্রথম দুই পর্যায়ে টিকা দেওয়া হবে। এরপর দেওয়া হবে যাদের বয়স ৫০-এর বেশি। এরপর প্রাধান্য পাবে ৫০ বছর কম বয়সি, যাদের কো-মর্বিডিটি আছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন আগেই জানিয়েছেন, প্রথম সারির যোদ্ধাদের জন্য বিনমূল্যে টিকাকরণ করা হবে। তবে ৫০ উর্ধ্ব এবং কো-মর্বিডিটি যাদের আছে তাদের ক্ষেত্রে বিনামূল্যে টিকাকরণ করা হবে কি না তা এখনও স্পষ্ট নয়।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?