Monday, March 1, 2021
Home রাজ্য বর্ধমান সায়নীকে 'যৌনকর্মী' বলে কটাক্ষ সৌমিত্রের।

সায়নীকে ‘যৌনকর্মী’ বলে কটাক্ষ সৌমিত্রের।

আমাদের শিবলিঙ্গকে যাঁরা অপমান করেছে, আমাদের মা মনসাকে যাঁরা অপমান করে তাঁরাই অরিজিনাল যৌনকর্মী বলে আমি মনে করি।”

নিজস্ব প্রতিনিধি,বর্ধমান:দুর্গাপুজোর নবমীর বাড়িতে গরুর মাংস রান্নার বিতর্ক কার্যত মধ্যগগনে।তথাগত রায়ের পর সায়নী কে ফের কুরুচিকর আক্রমণ করলেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।তার বক্তব্য,“আমাদের শিবলিঙ্গকে যাঁরা অপমান করেছে, আমাদের মা মনসাকে যাঁরা অপমান করে তাঁরাই অরিজিনাল যৌনকর্মী বলে আমি মনে করি”।

বৃহস্পতিবার পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষের সভায় অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের উদ্দেশ্যে এই মন্তব্য করলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ।এদিনের সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধেও কড়া ভাষায় মন্তব্য করেন বিজেপি সাংসদ।

তিনি বলেন, “ওই ফিল্ম আর্টিস্ট কিছু যাঁরা শুধু দক্ষিণ কলকাতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ২ লক্ষ টাকা করে স্যালারি পায়। তাঁরা কি বলছে জানেন? এই বর্ধমানের শিব মন্দিরে, এই বুয়াইচণ্ডী কালী মন্দিরে, শিব মন্দিরে যে শিবলিঙ্গ থাকে সেই শিবলিঙ্গতে বলছে কন্ডোম পরিয়ে শিব পুজো করা হোক। এত বড় নিষ্কলঙ্ক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলছেন, তাঁর কবিরা বলছে, বলছে কি, মা সরস্বতী হল যৌনকর্মী?

আমি শুধু একটা কথা বলতে চাই। তাঁকে জবাব দেওয়ার সময় এসেছে। না হলে এখানে মন্দির একটাও থাকবে না। না হলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আপনাদের ঘাড় ধরে বের করে দেবে।”

এরপরই সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন সৌমিত্র খাঁ। গোমাংস রান্না করার প্রসঙ্গ তুলে দেবলীনা দত্তকেও একহাত নেন। সভায় বলেন,”আমি সায়নী ঘোষকে বলতে চাই, তোমরা এই ধরনের কথা বলছ। ধর্মতলায় বসে বসে নাটক করছ। ওই ধর্মতলায় বসে বসে অনেক কিছু বলছ। আমরা তো বলছি না তোমারা যেদিন মসজিদে আজান পড়বে আমরা কিছু খারাপ কাজ করব।

তৃণমূলের চাকরের মতো কিছু অভিনেতা-অভিনেত্রীরা বলছে যে দুর্গা পুজোর অষ্টমীর দিন গরুর মাংস খাওয়াবে। আমরা বলতে পারি দেখুন যে যাঁর ধর্মে বিশ্বাস করি। কিন্তু আমাদের শিবলিঙ্গকে যাঁরা অপমান করেছে, আমাদের মা মনসাকে যাঁরা অপমান করে তাঁরাই অরিজিনাল যৌনকর্মী বলে আমি মনে করি।”

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?