Saturday, May 15, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সমর্থন,বিজেপিতে যাচ্ছেন বাঁকুড়ার বিক্ষুদ্ধ তৃণমূলনেতা।

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সমর্থন,বিজেপিতে যাচ্ছেন বাঁকুড়ার বিক্ষুদ্ধ তৃণমূলনেতা।

উনি যে দলেই যাক না কেন তাতে আমাদের তৃণমূল দলে কোনো প্রভাব পড়বে না’মন্তব্য তৃণমূলের।

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ দলবদলের আশায় এবার খোদ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষরা পাত্রসায়রের প্রাক্তন তৃণমূল ব্লক সভাপতি স্নেহেশ মুখোপাধ্যায়ের দ্বারস্থ হলেন।

বুধবার বিকালে পাত্রসায়ের ব্লকের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ১৫০টি সংখ্যালঘু পরিবারের মানুষ স্নেহেশবাবুর বাড়ির সামনে ধরনায় বসেন।
তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকে দলের একনিষ্ট কর্মী হয়ে স্নেহেশ মুখোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে সিপিএম দলের হার্মাদ বাহিনীর সঙ্গে লড়াই চালিয়েছিলেন এই সংখ্যালঘু পরিবারগুলি । তাদের দাবি আমরা স্নেহেশ দাদার অনুগামী।

পাত্রসায়েরে তৃণমূলের উত্থান যাঁর হাত ধরে, রাজ্যে পালা বদলের পর সেই স্নেহেশ মুখোপাধ্যায়কেই দলে ব্রাত্য করে রাখা হয়েছিল। সেই অভিমানে তিনি দল থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছিলেন এমনটাই জানা যাচ্ছে। সেই সময় স্নেহেশবাবু দলের ব্লক সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন।
এবার সম্ভবত সরাসরি তিনি নিজের হাতে গড়া লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চলেছেন গেরুয়া তিলক কেটে।

আবজাল মল্লিক নামে স্নেহেশ মুখার্জির এক অনুগামী বলেন , সিপিএমের হার্মাদের সময় আমরা তার নেতৃত্বে তৃণমূলকে ক্ষমতায় আনতে লড়াই চালিয়ে গেছি কিন্তু পরে তৃণমূল কংগ্রেসে তোলাবাজ দুর্নীতিবাজে ভরে যায় এবং তাদের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করে স্নেহেশ মুখার্জি দল থেকে বেরিয়ে যান এবং আমরাও দল থেকে বেরিয়ে যায় । তাই আমরা এখন চাই তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই,আর সেই লড়াই করতে হলে স্নেহেশ মুখার্জির ছাড়া সম্ভব নয় । তিনি সামনে থেকে বিজেপিতে যোগদান করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করুক , আমরা তার সাথে আছি ।

ডালিম সেখ নামে অপর একজন বলেন , রাজ্যের পাশাপাশি পাত্রসায়ের ব্লকেও দুর্নীতিতে ভরে গেছে তৃণমূল কংগ্রেস।তাই দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের এই ধর্না । স্নেহেশ মুখার্জি 34 বছর সিপিএম এর বিরুদ্ধে লড়াই করে তৃণমূল কংগ্রেসকে ক্ষমতায় এনেছে , আমরা চাই তৃণমূলের এই দুর্নীতির বিরুদ্ধে স্নেহেশ মুখার্জি বিশ্বের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল বিজেপিতে যোগদান করুক ।

এ বিষয়ে স্নেহেশ মুখার্জি জানান, একসময় তৃণমূলের ব্লক সভাপতি হিসেবে হার্মাদ পিরিয়ডে লড়াই চালিয়েছি এই মানুষগুলোর সহযোগিতা নিয়ে । কিন্তু বর্তমানে তৃণমূলের মধ্যে সিন্ডিকেট রাজ যেভাবে বাসা বেঁধেছে তার বিরুদ্ধে সকলেই রুখে দাঁড়িয়েছে তাই আমরাও রুখে দাঁড়াবো । তবে এই মানুষগুলোকে নিয়ে আগামী দিনে তিনি বিজেপিতে যোগদান করবেন বলেই জানান ।

স্নেহেশবাবুর এই খোলাখুলি ঘোষণার কোনো মন্তব্য করতে চান নি তৃণমূলের বর্তমান পাত্রসায়র ব্লক সভাপতি দিলীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন , এই সিদ্ধান্ত স্নেহেশ মুখোপাধ্যায়ে সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত। এটা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। তবে উনি যে দলেই যাক না কেন তাতে আমাদের তৃণমূল দলে কোনো প্রভাব পড়বে না’।

ততবে দীর্ঘ অবসানের পর স্নেহেশ মুখোপাধ্যায়ের এই স্বীকারোক্তি নিয়ে বাঁকুড়ার গ্রামীন রাজনীতিতে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে জল্পনা । এই ঘটনায় আরো একবার চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো,” রাজনীতির মানুষদের রঙ পালটায় না, পালটায় শুধু পতাকার রঙের”।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?