Monday, March 1, 2021
Home লাইফস্টাইল বেড়ানো "যা জোয়া যা, জি লে আপনি জিন্দেগি"।

“যা জোয়া যা, জি লে আপনি জিন্দেগি”।

এ এক অন্য তিতলির গল্প

ভারত যখন জাতীয় যুব দিবস অর্থাৎ বিবেক জয়ন্তী উদযাপনে ব্যস্ত। তখন সোমবার প্রায় ভোর তিনটে বেজে সাত মিনিটে ব্যাঙ্গালুরুর ক্যাম্পেগৌড়া বিমানবন্দরে নামলো একটা এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান। সঙ্গে বিমানবন্দর জুড়ে করতালি, অসাধ্য সাধনের উচ্ছ্বাস। কিন্তু বিমানবন্দরে বিমান নামবে, বন্দরে জাহাজ ঢুকবে, স্টেশনে ট্রেন থামবে। এটাই হয়েছে। আগামি দিনেও হবে। তাহলে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানের সফল অবতরণের পর এত উদযাপন কেন?

কারণ এই বিমানের চারজন পাইলটই মহিলা। যাঁর নেতৃত্বে ক্যাপ্টেন জোয়া আগরওয়াল। বাকিরা ক্যাপ্টেন পাপাগরি থানমাই, ক্যাপ্টেন আকাঙ্খা সোনাওয়ারে আর ক্যাপ্টেন শিবানী মানহস। এবার ভাবছেন, আমি আর আপনি যে বিমানে চড়ি, সেটায় তো দুই জন পাইলট। ক্যাপ্টেন আর তাঁর কো-পাইলট।

এই বিমানে চারজন পাইলট কেন?
কারণ এই বিমান সানফ্রান্সিসকো থেকে উত্তর মেরু হয়ে সোজা ব্যাঙ্গালুরু নামে। উত্তর মেরুর মতো দুর্গম আকাশসীমা পেরিয়ে একটানা ১৬ ঘণ্টার ননস্টপ যাত্রা। যাকে বলে ননস্টপ। সেই অসাধ্য সাধন করেছেন এই চার নারী। নারী মানে তো অর্ধেক আকাশ। না, না, নারী মানে এখন ১৬০০০ কিমি দীর্ঘ দুর্গম আকাশ। যে আকাশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েছেন এই চার নারী।

আবার একটা প্রশ্ন? এটা কি মক ফ্লাই? সাধারণত, একটা/দুটো স্টপ হয়ে ইউএস থেকে বিমান ভারতে নামে! তাহলে ননস্টপ এই বিমান কোথা থেকে? এয়ার ইন্ডিয়া এখন থেকে সপ্তাহে দু’দিন ননস্টপ সানফ্রান্সিসকো-বেঙ্গালুরু উড়ান চালাবে। আর AI (176) হল এই রুটের সর্বপ্রথম ফ্লাইট। যার উদ্বোধন হল এই চার নারীর আঙ্গুলে। নর্থ পোলের মতো দুর্গম আকাশসীমার ওপর দিয়ে একটানা ১৬ ঘণ্টা বিমান চালিয়ে ২৩৮ জন যাত্রীকে সফল অবতরণ করিয়ে আর একটা অসাধ্য সাধন করেছেন টিম জোয়া আগরওয়াল। প্রায় দু’হাজার থেকে দশ হাজার কেজি পর্যন্ত ফুয়েল বাঁচিয়েছে এই চার জন। যেটা একমাত্র নর্থ পোলের ওপর দিয়ে উড়ে আসলেই সম্ভব। আর সেটা সম্ভব করে দেখিয়েছে এই চার জন। শাড়িতে নারী নয়, বরং ভরসা মানে নারী। যেটা ভারতের অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক-সহ ২৩৮ জন যাত্রী রেখেছিল এই পাঁচজনের ওপর।

এই চারজন আরও যেটা করে দেখিয়েছে, সেটা হলো সপাটে চড় মেরেছে তথাকথিত সমাজকে। যে সমাজের কাছে নারী মানে শুধু সন্তানধারনের গর্ভ। বছর পচিশের পর বিয়ের পাত্রী। কোনও একটা ধর্ষণের পর সমাজের তথাকথিতদের থেকে একটা ‘যৌক্তিক’ প্রশ্ন ওঠে: অতো রাতে কী করছিল? বা ওখানে কেন গিয়েছিল? বা মেয়েদের এত ওড়া কি ভালো? সব প্রশ্নের জবাব AI-176। যাকে উড়ে এবং উড়িয়ে দেখিয়েছে এই চার জন। ভাগ্যিস এদের বাড়ি বলে ওঠেনি, এত উড়ে কী হবে? সেই তো বেলতে হবে রুটি।

বরং বলেছিল: “যা জোয়া যা, জি লে আপনি জিন্দেগি”।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?