Saturday, October 16, 2021
Home কলকাতা ভোটার ময়দানে আব্বাস সিদ্দিকি।গঠন করলেন 'ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট'।

ভোটার ময়দানে আব্বাস সিদ্দিকি।গঠন করলেন ‘ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট’।

আজ দলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হলেও আগামী ২৬ শে জানুয়ারি থেকে পথ চলা শুরু করবে 'ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট'।

একুশে বিধানসভার উত্তাপ বাড়িয়ে এবার ভোটের ময়দানে নামলেন ভাইজান ‘আব্বাস সিদ্দিকি’।বুধবার প্রেসক্লাবে আনুষ্টানিক ভাবে দলের নাম ও পতাকার উদ্বোধন করলেন আব্বাস।নতুন দলের সম্পাদক হলেন নৌসর সিদ্দিকি ও সভাপতি হলেন সিমন সরেন।

তবে আজ দলের উদ্বোধন হলেও আগামী ২৬ শে জানুয়ারি আনুষ্টানিক ভাবে পথ চলা শুরু করবে ‘ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট’।সেদিন ই ঘোষিত হবে গোটা দলের কর্মকাণ্ড।যদিও ‘ভাইজান’ এখনো পর্যন্ত কত কেন্দ্রে প্রার্থী দেবে তা এখনো স্পষ্ট করেননি।আগামী ২৬ শে জানুয়ারিই দলের গোটা কর্মসূচি বিস্তারিত জানানো হবে।

একুশে নির্বাচনে ‘ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্টের’ মূল লক্ষ্য হলো কর্মহীনদের কর্মসংস্থান সঙ্গে খাদ্য ও বাসস্থান সুনিশ্চিত করা।

সাংবাদিক বৈঠক শেষে তার দলকে নিয়ে প্রশ্ন উত্তর পর্বে তিনি বেশ কিছু বিষয়ে জানান-

*তার দলের লক্ষ্য মানবতাপ্রেম ও দেশ প্রেম।

*গত কয়েকদিন ধরে ‘পার্শ্বশিক্ষকদের’ চলা মিছিলকে তিনি সমর্থন করছেন।

*হায়দ্রাবাদের আসাদউদ্দিন ওয়েসিস এর ‘মিম’ পার্টি ও বিজেপিকে তিনি পিছন থেকে সমর্থন করছেন!এপ্রসঙ্গে আব্বাস সিদ্দিকি জানিয়েছে,”মানুষের ভুল বকতে ট্যাক্স লাগে না,যা ইচ্ছা বলুক”।

*নির্দিষ্ট কোনো সিট নেই।২৯৪ টি কেন্দ্রেও প্রার্থী দিতে পারি।

*রাজনীতিতে কেন আসলেন!
উত্তরে জানান,রাজনীতি রাষ্ট্র সেবা,কোনো পাপ নয়।

*যদি কোনো দল জোট করতে চায় সেক্ষেত্রে সমস্ত দলের প্রতিনিধি ও সবাইকে স্বাগত।

*বর্তমান সময়ের জন্যই নতুন দল দরকার।মুসলিমরা পিছিয়ে আছে।তাদের উন্নয়নের জন্যই নতুন দল গঠন।

*বিজেপির সমর্থন করি না বিজেপি দেশের জন্য ক্ষতিকারক।

*পরিবারের সমর্থন ছাড়া আমি সামনে আসেনি। আমার পরিবারের অন্য কোনো ‘পীর’ কাউকে সমর্থন করতেই পারে।সেবিষয়ে আমি কিছু বলতে চাই না।

* আমি সুশাসনের পক্ষে,দুর্নীতির বিরুদ্ধে।

*দল গঠনে মুসলিম ভোট ভাগ হবে,তৃণমূলের ক্ষতি হবে!সেপ্রসঙ্গে ভাইজান জানান, তৃনামূল কে বাঁচানোর দায়িত্ব আমার নয়,ভোট ভাগ হলে মমতা দিদির জন্যই হবে।উনি প্রতিশ্রুতি পালনে ব্যর্থ।আজ উনিই দুই জাতির ফাটল তৈরী করেছে।তাই জন্যই বিজেপির বাড়বাড়ন্ত।

তবে আজকের বৈঠক থেকে আব্বাস সিদ্দিক এটা কার্যত বুঝিয়ে দিলেন আগামী নির্বাচনে বিজেপি নয় তার মূল প্রতিপক্ষ তৃণমুলই।তাই ভোটার ময়দানে ঘাসফুল কে জায়গা ছাড়ার কোনো অবকাশ নেই।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?