Sunday, February 28, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া বর্ষবরণে আদিবাসীদের মিলনোৎসব,প্রদর্শিত সাংস্কৃতিক সম্ভার।

বর্ষবরণে আদিবাসীদের মিলনোৎসব,প্রদর্শিত সাংস্কৃতিক সম্ভার।

খেরওয়াল তুকৌ -২০২১বর্ষবরণে আদিবাসীদের মিলনোৎসব শুশুনিয়া পাহাড়ের পিছনে শিউলিবনা গ্রামে।

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ প্রকৃতির সাজে একদল পুরুষ ও রমণী ধামসা মাদলের দ্রিমি দ্রিমি তালে শীতের ভোরে কুয়াশার চাদর সরিয়ে অবিরাম নাচ আর গানের মূর্ছনায় শুরু হল আদিবাসী মিলনমেলা খেরওয়াল তুকৌ। বুধবার বাঁকুড়ার শুশুনিয়া পাহাড় তলির শিউলিবনা গ্রামে অমরকানন মঠ ও মিশনের উদ্যোগে এই মিলনমেলার উদ্বোধন হল ইংরেজি নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে। অন্যান্য বছর সারা দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে আদিবাসীরা এই মিলনমেলায় তাদের নিজ নিজ সাংস্কৃতিক সম্ভার নিয়ে হাজির হলেও এবার করোনা পরিস্থিতি মেলার গরিমায় অনেকটাই জল ঢেলে দিয়েছে।

ঋষিঋদ্ধা অনাহতা বলেন, বর্ষ বিদায় ও বর্ষবরণের এই দুদিন ধরে উৎসব চলে। কিন্তু এবার কোভিড পরিস্থিতির কথা ভেবে ১ দিনের মেলা করা হয়েছে। তিনি জানান যেহেতু এদিনই প্রভুজির পদধূলি এই গ্রামে পড়েছিল সে কারণেই ১ জানুয়ারি মিলনমেলার আয়োজন হয়। আদিবাসীরা সারাবছর মাঠে-ঘাটে কাজ করতে করতে বিনোদনের কোনো ফুরসত পাননা। সেই সঙ্গে দেশের বিভিন্ন প্রদেশের আদিবাসীদের সংস্কৃতির ধারায় যে বিবর্তন রয়েছে তাও তাদের কাছে অজানা থাকে। সে কারণেই বিভিন্ন প্রদেশের আদিবাসী সংস্কৃতির আদান-প্রদান, ভিন রাজ্যের মানুষের সঙ্গে মিলে বিনোদনে অংশগ্রহণ করানোর উদ্দেশ্যেই এই আদিবাসী মিলনমেলা খেরওয়াল তুকৌর আয়োজন। বর্ষবরণের দিন শুশুনিয়া পাহাড়ে লক্ষাধিক মানুষের ভিড় হয়। এবার তুলনায় কিছুটা কম হলেও পাহাড়ে চুড়ুইভাতি করতে আসা মানুষের ঢেউ একবার অন্তত শিউলিবনায় আছড়ে পড়বেই। এবারও প্রায় ৫০ হাজারের বেশি মানুষ এই আদিবাসী মিলনমেলা দর্শন করলেন বলেই মেলা কমিটির দাবি। করোনা বিধি মেনে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ পংক্তি ভোজনে অংশ নেন বলে জানান ঋষি ঋদ্ধা অনাহতা।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?