Friday, May 14, 2021
Home দেশ বঁদায়ু গণধর্ষণকাণ্ডে গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত মন্দিরের প্রধান পুরোহিত সত্যনারায়ণ।

বঁদায়ু গণধর্ষণকাণ্ডে গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত মন্দিরের প্রধান পুরোহিত সত্যনারায়ণ।

যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে আঘাত! পুলিশের জালে বদায়ূ কাণ্ডের অভিযুক্ত প্রধান পুরোহিত সত্যনারায়ণ।গভীর রাতে বাইকে করে পালানোর পথে গ্রেফতার।

উত্তরপ্রদেশে বঁদায়ু গণধর্ষণকাণ্ডে গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত মন্দিরের প্রধান পুরোহিত সত্যনারায়ণ। বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিস। গভীর রাতে বাইকে চড়ে পালানোর সময়ই সত্যনারায়ণকে গ্রেফতার করে পুলিস। গত পরশু অর্থাৎ বুধবার রাতে সত্যনারায়ণের ২ শিষ্যকে গ্রেফতার করেছিল পুলিস।

অভিযোগ,রবিবার বছর ৫০-এর ওই প্রৌঢ়া যখন মন্দিরে পুজো দিতে যান, তখনই তাঁকে গণধর্ষণ করে সত্যনারায়ণ ও তাঁর ২ শিষ্য। ধর্ষণের পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জেরে মৃত্যু হয় নির্যাতিতা। ঘটনার নৃশংসতা দিল্লী ও হাথরসের স্মৃতিকে উসকে দিয়েছে।

বঁদায়ু  কান্ডে মৃতার ছেলে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে,’অভিযুক্ত প্রধান পুরোহিত সত্যনারায়ণ ও তার ২ শিষ্য একটা গাড়িতে করে এসে বাড়ির দরজার সামনে নির্যাতিতা প্রৌঢার দেহ ফেলে রেখে পালিয়ে যায়’।

তিনি আরও জানান,’রোজই ওই মন্দিরে পুজো দিতে যেতেন তাঁর মা। রবিবারও বিকেল ৫টা নাগাদ পুজো দেওয়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হন তিনি।এরপর রাতে সাড়ে ১১টা নাগাদ অভিযুক্তরা তাঁর মায়ের রক্তাক্ত দেহ বাড়ির সামনে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়’।

সোমবার সকালে দেখা যায় সেই ভয়ঙ্কর অত্যাচারের ছবি।’একটা খাটিয়ার উপর শোওয়ানো রয়েছে নির্যাতিতা প্রৌঢ়াকে। তাঁকে ঘিরে রয়েছে পরিবারের লোকজন ও গ্রামবাসীরা। একটা হলুদ রঙের চাদর দিয়ে প্রৌঢ়ার শরীরের নিম্নাংশ ঢাকা। রক্তে ভিজে গিয়েছে সেই চাদরটি। পা-ভাঙা অবস্থায় ঝুলছে।

পরিবারের পরিজনদের অভিযোগ, নির্যাতিতার যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে আঘাত করা হয়। ভারী কিছু দিয়ে বার বার বুকের উপরও আঘাত করা হয়। যার জেরে প্রৌঢ়ার পাঁজরের হাড়ও ভেঙে যায়।যদিও তার আগেই ডাক্তারি পরীক্ষায় সেই রিপোর্টই দেওয়া হয়।

নির্যাতিতা প্রৌঢ়ার ময়নাতদন্তের রিপোর্টেও যৌনাঙ্গে ক্ষতচিহ্ন মিলেছে। রিপোর্টে উল্লেখ ছিল, তাঁর পা ভাঙা অবস্থায় ছিল। গণধর্ষণের জেরে অত্যধিক রক্তক্ষরণ হয় ওই প্রৌঢার। যার জেরেই ওই প্রৌঢ়া প্রাণ হারান। বঁদায়ু গণধর্ষণকাণ্ডের নৃশংসতা ফের একবার উসকে দিয়েছে হাথরস কাণ্ডের স্মৃতি। তবে একের পর এক গণধর্ষণের ঘটনায় ফের প্রশ্নের মুখে যোগীরাজ্যের প্রশাসন।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?