Sunday, May 16, 2021
Home রাজ্য উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা ফের পুর প্রশাসকের দায়িত্বে বসব',হুঙ্কার শুভেন্দু ব্রাদারের।

ফের পুর প্রশাসকের দায়িত্বে বসব’,হুঙ্কার শুভেন্দু ব্রাদারের।

'আমি ছিলাম, আছি, থাকব। এখনও চার্জ হ্যান্ডওভার করিনি।'

‘সিদ্ধার্থ মাইতিকে সরিয়ে ফের পুর প্রশাসকের দায়িত্বে বসব,হুঙ্কার দিলেন সৌমেন্দু অধিকারী।
কাঁথি পুরসভার পৌরপ্রধানের পদ থেকে অপসারিত করার পরই বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করলেন শুভেন্দুর ভাই সৌমেন্দু।
মামলা করার পর জনসমক্ষে চ্যালেঞ্জ করলেন সৌমেন্দু ।রীতিমতো হুঙ্কার দিয়ে জানান ‘আমি ছিলাম, আছি, থাকব। এখনও চার্জ হ্যান্ডওভার করিনি।’

উল্লেখ্য, কাঁথি পুরসভার প্রশাসক পদ নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে। বাড়ির ছোট ছেলে পদ খোয়ানোয় ক্ষুব্ধ অধিকারী পরিবার। শুভেন্দুর বাবা শিশির অধিকারী পূ্র্ব মেদিনীপুর তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা সাংসদ। আর ভাই দিব্যেন্দুও সাংসদ। এর আগে পরিবারের চার সদস্যই বসতেন কাঁথি পুর ভবনে। শুভেন্দুর একটি অফিসও ছিল সেখানে। কিন্তু বৃহস্পতিবার থেকে আর কেউই পুরভবনে বসছেন না।

এদিকে সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারী ও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, ভাই সৌমেন্দুকে প্রশাসক পদ থেকে সরানোর প্রতিবাদে আর পুরসভায় যাবেন না। দলের কর্মসূচিতেও যোগ দিচ্ছেন না। তবে সরকারি অনুষ্ঠানে যদি আমন্ত্রণ জানানো হয়,তাহলে যাবেন। এই পরিস্থিতিতে পুর ও নগরোয়ন্নন দফতরের নির্দেশিকাকে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছেন সৌমেন্দু। ৪ তারিখ মামলাটির শুনানি।

কাঁথি পুরসভার প্রশাসক অপসারণ প্রসঙ্গে সৌমেন্দু অধিকারী বলেন, ‘গত পরশু দেখলাম, সোশ্যাল মিডিয়ায় অর্ডারের কপি ঘুরছে। কাল নোটিফিকেশন এল। আমায় অফিস থেকে মেল করে বিষয়টি জানানো হয়।’ অপসারিত পুর প্রশাসকের দাবি, তাঁকে আলাদাভাবে কিছু জানানো হয়নি! বৃহস্পতিবার কাঁথি পুরসভার প্রশাসকের দায়িত্ব নিয়েছেন অখিল গিরি ঘনিষ্ট সিদ্ধার্থ মাইতি। সৌমেন্দুর দাবি, রাজনৈতিক দলের কার্যালয়ের মতোই ক্ষমতা বদলের পুরসভা দখল নেওয়ার চেষ্টা চলছে। পুরসভার কর্মীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার, এমনকী মারধরও করা হচ্ছে। যদিও বিজেপিতে যোগ দেওয়ার বিষয় নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি তিনি।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?