Sunday, February 28, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া প্রাক্তন বিধায়ক এর বাড়িতে অনুব্রত ,দলীয় জল্পনা তুঙ্গে।

প্রাক্তন বিধায়ক এর বাড়িতে অনুব্রত ,দলীয় জল্পনা তুঙ্গে।

মান ভাঙিয়ে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব! প্রাক্তন বিধায়ক এর বাড়িতে অনুব্রত ।

কৌশিক সালুই বীরভূম 24 জানুয়ারি:- ছেড়ে চলে যাওয়া দলের প্রাক্তন হেভিওয়েট বিধায়ক স্বপন কান্তি ঘোষের বাড়িতে হঠাৎ হাজির হলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সুপ্রিমো অনুব্রত মণ্ডল ও সহ-সভাপতি অভিজিৎ সিংহ।

রবিবার বীরভূমের মহম্মদ বাজারে দলীয় কর্মসূচি সেরে বিধায়কের প্যাটেল নগর বাড়িতে হাজির হন তৃণমূলের ওই দুই নেতা। তৃণমূলের পক্ষ থেকে সৌজন্য সাক্ষাত বলা হলেও একদা বিপরীত মেরুতে থাকা প্রাক্তন বিধায়ককে দলে ফিরিয়ে ফের প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের। যদিও প্রাক্তন বিধায়ক রাজনীতিতে আর নয় বলে জানিয়ে ছিলেন আগেই।

সিউড়ি বিধান সভার প্রাক্তন বিধায়ক তথা শিল্পপতি স্বপন কান্তি ঘোষের বাড়িতে এদিন হাজির হলেন জেলা তৃণমূলের দুই শীর্ষ নেতা। 2011 নির্বাচনে সিউড়ি থেকে জয়ী হন স্বপন বাবু। পরবর্তী সময়ে সিউড়ি পুরসভার পানীয় জলের সমস্যা ও সমাধান নিয়ে মতানৈক্যের কারণে দল ছেড়ে বেরিয়ে যান। যদিও তিনি রাজনৈতিকভাবে অবসরের কথা ঘোষণা করেন। জেলা তৃণমূলের রাজনীতিতে সেই সময় জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল ও স্বপন ঘোষ বিপরীত মেরুতে অবস্থান করতেন। তাদের গোষ্ঠী কোন্দল সর্বজনবিদিত। তারপর ময়ুরাক্ষী নদী তে বহু জল পেরিয়ে গেলেও সিউড়ির প্রাক্তন বিধায়ক কে বা জেলা তৃণমূল সভাপতি কে একে অপরের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শোনা যায়নি।

তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের মধ্যে একান্ত সাক্ষাৎ শীতল সম্পর্ক কি উষ্ণতা ফিরে পাবে? তা সেটা সময়ের অপেক্ষা বলে মত রাজনৈতিক কারবারিদের। স্বপন বাবু ঘনিষ্ঠজনদের কাছ থেকে জানা গিয়েছে প্রশান্ত কিশোর সরাসরি থাকে ফের সিউড়ি থেকে ভোটের ময়দানে নামার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি সেই প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছেন।

2016 নির্বাচনে তৃণমূল সিউড়ি থেকে জিতলেও 2019 লোকসভা নিরিখে বহু ভোটে পিছিয়ে রয়েছে। ইতিমধ্যেই ভূমিপুত্র বা এলাকার বাসিন্দা কাউকে প্রার্থী করুক শাসক দল এই আওয়াজ বিভিন্ন জায়গায় উঠতে শুরু করেছে। সেই পরিস্থিতিতে ফের স্বপন ঘোষ কে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী করতে পারলে যে তারা এগিয়ে থেকেই শুরু করবে বলে মতামত সকলের। প্রাক্তন বিধায়ক রাজনীতি ছেড়ে দিলেও তিনি সিউড়ি বিধানসভা এলাকায় বহু অনুগামী এখনো বর্তমান এবং স্বপন ঘোষ প্রার্থী হলে এই সমস্ত অনুগামীদের সরাসরি পাওয়া যাবে।

এদিকে স্বপন ঘোষ তাঁর ঘনিষ্ঠ মহলে বারবার বলেছেন আর রাজনীতি নয় এবার নিজের পারিবারিক ব্যবসা নিয়েই আগের মত থাকতে চাই। বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সহ-সভাপতি অভিজিৎ সিংহ বলেন,” সৌজন্য সাক্ষাতকার। তবে রাজনীতি নিয়ে কথা হয়েছে কিনা সেটা বলবো না। এই বিষয়ে নো কমেন্ট”।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?