Monday, March 1, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া প্রতিষ্টা দিবসে বাঁকুড়ায় দলীয় কর্মসূচি তৃণমুলের,উপস্থতি কল্যাণ ব্যানার্জি।

প্রতিষ্টা দিবসে বাঁকুড়ায় দলীয় কর্মসূচি তৃণমুলের,উপস্থতি কল্যাণ ব্যানার্জি।

শনিবার বাঁকুড়ার রবীন্দ্র ভবনে তৃনমূল ছাত্র পরিষদের সম্মেলনে তৃণমূল কংগ্রেসের বর্ষীয়ান সাংসদ কল্যাণ ব্যানার্জির উপস্থিত ছিলেন।

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃনতুন বছরের প্রথম দিনই সর্বভারতীয় তৃণমুল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবস।
সেই উপলক্ষে শনিবার বাঁকুড়ার রবীন্দ্র ভবনে তৃনমূল ছাত্র পরিষদের সম্মেলনে তৃণমূল কংগ্রেসের বর্ষীয়ান সাংসদ কল্যাণ ব্যানার্জির উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও তৃণমূল কংগ্রেসের বর্ষীয়ান সাংসদ কল্যাণ ব্যানার্জি ছাড়াও বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শ্যামল সাঁতরা, বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান শুভাশিস বটব্যাল, বাঁকুড়া জেলার কো-অর্ডিনেটর সুব্রত দরিপা, জেলা পরিষদের কর্মাদক্ষ শিবাজী ব্যানার্জি, বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি রাজকুমার সিংহ, বাঁকুড়া পৌরসভার প্রশাসক অলকা সেন মজুমদার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য দিলীপ আগরওয়াল ও গৌতম দাস, বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি তীর্থঙ্কর কুন্ডু সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

এই সম্মেলনের মাধ্যমে কল্যাণ ব্যানার্জি এই এলাকাটি তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য সমর্থকদের আগামী বিধানসভা নির্বাচনের জন্য উদ্বুদ্ধ করেন । তিনি বলেন যে শুধু দিদি অর্থাৎ মমতা ব্যানার্জির নাম করলেই হবে না তাঁর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দিদির জন্য প্রাণপাত করে কংগ্রেস বিজেপি সিপিএম এর বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে। তিনি নিজের অভিজ্ঞতা দিয়ে একটি ঘটনার কথা বলেন। তিনি বলেন যে বাঁকুড়া থেকে এই রকমই একটি সভা করে সদ্য তিনি তাঁর কোলকাতার বাসভবনে প্রবেশ করেছিলেন তখন তিনি খবর পান যে তাঁর লোকসভা কেন্দ্র শ্রীরামপুরে এক তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রীর ওপর হামলা করা হয়েছে। তিনি তৎক্ষণাত সেখানে যান এবং মাত্র এক ঘন্টার মধ্যে সেখানে পাঁচ হাজার ছাত্রদের ভীড় লেগে যায়। তিনি বলেন যে এটি সম্ভব হলো এই কারণে যে ছাত্র যুবরা যেমন নেতা ও দলের প্রতি নিষ্ঠাবান থাকবে ঠিক তেমনি নেতা নেত্রীকেও সব সময় ছাত্র যুবদের সাথে থাকতে হবে।

কল্যাণ ব্যানার্জি আরও বলেন যে ছাত্র যুব সমাজকে সাথে নিয়ে চলতে হবে ,একমাত্র তবেই যেকোনো নেতার পক্ষে সাফল্য পাওয়া সম্ভব। তিনি বলেন যে তাঁর সংসদীয় কেন্দ্র শ্রীরামপুরে তাঁর সাফল্যের রহস্য হল ছাত্র ও যুব সমাজের সমর্থন। তিনি বলেন যে যুব সমাজকে তিনি তাঁর বন্ধুর মতো মনে করেন। তিনি দাবি করেন যে তিনি কখনওই ছাত্রদের সামনে তাঁর পাণ্ডিত্য আওড়ান নি তাই যুব সমাজও তাঁকে আপন করে নিয়েছে।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?