Friday, May 14, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া 'নার্স থেকে নেতা',করোনা ভুলে বাগদেবীর আরাধনায় মাতলেন বাঁকুড়াবাসী।

‘নার্স থেকে নেতা’,করোনা ভুলে বাগদেবীর আরাধনায় মাতলেন বাঁকুড়াবাসী।

একদিকে করোনা গ্লানি মুছে বাগদেবীর আরাধনায় মাতলো বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নার্সরা অপরদিকে বাঁকুড়ার সারদামণি মহিলা মহাবিদ্যাপীঠেও মহা সমারোহে পালিত হলো সরস্বতী পুজো।

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ সারাবছর মানুষের পাশে থেকে মানুষের জন্য কাজ করা নিয়ম নিষ্ঠাকে প্রাধান্য দিয়ে নিজের দায়িত্ব পালন করা আর মাসের পর মাস এবং সারাটা বছর কেটে যায় । আজ তারা বাগদেবীর আরাধনায় মেতে উঠেছেন।এমনই সু-মধুর ছবি ফুটে উঠলো আজ।

বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নার্সরা নিজেদের প্রচেষ্টায় তৈরি করেছেন প্যান্ডেল।শুধু তাই নয় প্যান্ডেলের ভেতরের সমস্ত কারুকার্য নিজেদের হাতের তৈরি করেছেন তারা।হাসপাতালের সকল নার্সরা মিলে আজকের দিনে আনন্দ উচ্ছ্বাসে মেতে উঠেছেন।

করোনা পরিস্থিতিতে জীবনকে বাজি রেখে মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন তারা,জীবনের তোয়াক্কা না করে প্রতিটা মুহূর্ত লড়াই চালিয়ে গেছেন করোনার সাথে। মায়ের কাছে সকল অশুভ শক্তিকে পরাজয়ের কামনা করলেন আজ তারা।

সূচনা সাহা নামে এক নার্স জানিয়েছেন,’ সারাবছর কাজের ব্যস্ততার মধ্যে থাকি আজ আমরা বাগদেবীর আরাধনার মেতে উঠেছি সকলে মিলে দারুন মজা করছি’।

হাসপাতালের পাশাপাশি সমানতালে পুজো হলো কলেজেও।বাঁকুড়া জেলার সারদামণি মহিলা মহাবিদ্যাপীঠেও সরস্বতী পুজোর আয়োজন করা হয়।

এপ্রসঙ্গে কলেজ স্টুডেন্ট কাউন্সিলের সম্পাদক দ্বীপান্বিতা মুখার্জি জানান,’কলেজে এ বছর সমস্ত ধরণের সরকারি নির্দেশিকা মেনে পুজোর আয়োজন করা হয়েছে’। প্রতিমা নির্বাচন থেকে পুজোর সমস্ত আয়োজনই তাঁরা কাঁধে তুলে নিয়েছেন।যা দেখে কলেজের অধ্যক্ষ সিদ্ধার্থ গুপ্ত যারপরনাই খুশি ।

আজকের আয়োজন নিয়ে দ্বীপান্বিতা জানান,’স্টুডেন্ট কাউন্সিলের সাথে যুক্ত সকলেই এই পুজোর আয়োজনে সহযোগিতা করেছে । এমনকি যাঁরা এই কাউন্সিলে কোনো পদে নেই তাঁরাও এই আয়োজনকে সাফল্যমণ্ডিত করে তুলতে পূর্ণ সহযোগিতা করেছে’।পুজো প্রসঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরাও তাঁদের চেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?