Tuesday, September 21, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া দুঃসাহসিক ডাকাতির ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার ৭

দুঃসাহসিক ডাকাতির ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার ৭

উদ্ধার বিপুল পরিমান গহনা সহ নগদ টাকা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বাঁকুড়া – দিনে দুপুরে বাঁকুড়া শহরে প্রকাশ্য রাস্তার পাশের একটি গহনার দোকান থেকে দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনার ৪৮ ঘন্টার মধ্যে অপরাধের কিনারা করল বাঁকুড়া জেলা পুলিশ। শুধু এই ঘটনার মাস্টার মাইন্ড সহ দুস্কৃতি দলের সাত জনকে গ্রেফতার করাই নয় এ রাজ্য ও ঝাড়খন্ডের একাধিক জায়গা থেকে উদ্ধার করা হল খোয়া যাওয়া বিপুল পরিমাণ সোনা ও রুপার গহনা, নগদ টাকা ও ডাকাতির ঘটনায় ব্যবহৃত দুটি গাড়ি ও একটি নাইন এম এম পিস্তল।

গত ১১ জুন নজিরবিহীন ভাবে দিনে দুপুরে জনবহুল ও প্রকাশ্য রাস্তার ধারে একটি অলঙ্কারের দোকানে ক্রেতা সেজে ভেতরে ঢোকে চার দুস্কৃতি। আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে দোকানের সর্বস্ব লুঠ করে নিয়ে একটি গাড়িতে চড়ে চম্পট দেয় দুস্কৃতিরা। ঘটনার দিনই সিট গঠন করে তদন্তে নামে বাঁকুড়া জেলা পুলিশ। দুস্কৃতি দলটি ডাকাতির পর অলঙ্কারের দোকানের সিসি ক্যামেরা নষ্ট করে দেওয়ায় সেই ক্যামেরার ফুটেজ না পেলেও আশপাশের দোকানের ও রাস্তার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে লাগানো সি সি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখে দুস্কৃতিদের ব্যাবহৃত গাড়িটিকে শনাক্ত করে তদন্তকারীরা।

এরপর গাড়ির চালক ও মালিককে শনাক্ত করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে অপরাধের মাস্টার মাইন্ড বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাটির বাসিন্দা বাবু গরাই এর খোঁজ মেলে। বাবু গরাইকে গ্রেফতার করে পুলিশ জানতে পারে ডাকাতির কাজে ব্যবহার করা হয়েছিল মুর্শিদাবাদ জেলার তিন জন দুস্কৃতির একটি দলকে। পাশাপাশি পুলিশ সূত্র মারফৎ জানতে পারে ডাকাতি করা অলঙ্কারগুলি বিক্রি করা হয়েছে ঝাড়খন্ডের নিরসা এলাকায়। এরপর মুর্শিদাবাদে হানা দিয়ে তিন দুস্কৃতিকে গ্রেফতারের পাশাপাশি নিরসায় হানা দিয়ে তদন্তকারীরা উদ্ধার করে বিপুল পরিমাণ সোনা ও রুপার অলঙ্কার। বাঁকুড়া জেলা পুলিশের দাবি খোয়া যাওয়া সোনার গহনার সম্পূর্ণ উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

খোয়া যাওয়া রুপার গহনা ও নগদ টাকার একটা বড় অংশও উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। দুস্কৃতি দলের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে অপরাধের কাজে ব্যবহার করা একটি নাইন এম এম পিস্তল ও দুটি গাড়ি। অপরাধের মাত্র ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গোটা ঘটনার কিনারা করা ও খোয়া যাওয়া অলঙ্কারের বেশিরভাগ অংশ উদ্ধার হওয়াকে বড়সড় সাফল্য বলেই মনে করছে বাঁকুড়া জেলা পুলিশ।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?