Saturday, October 16, 2021
Home রাজ্য হাওড়া ও হুগলি ডুমুরজলার বিজেপির 'ভুল জাতীয় সংগীত',ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুললেন অভিষেক।

ডুমুরজলার বিজেপির ‘ভুল জাতীয় সংগীত’,ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুললেন অভিষেক।

জাতীয় সংগীতের শেষভাগে ‘জনগণ মঙ্গলদায়ক…’এর পরিবর্তে ‘জনগণমন অধিনায়ক’ শব্দগুলি ভেসে আসে।

নিজেস্ব প্রতিনিধি, ডুমুরজলা:বিশেষ বিমানে শনিবার রাতেই দিল্লিতে অমিত শাহের বাসভবনে নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূলের বিক্ষুব্ধ নেতা-নেত্রীরা। তারপরই রবিবার ডুমুরজলার সভায় হাজির হন রাজ্যের প্রাক্তন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত নেত্রী বৈশালী ডালমিয়া, অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ-সহ সদ্য গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়া নেতা-নেত্রীরা।

এই সভাতেই ভারচুয়ালি উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সশরীরে হাজির হয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিও। সেখানেই নিজেদের বক্তব্য শেষে জাতীয় সংগীত গান প্রত্যেকে। আর তখনই ধরা পড়ে মারাত্মক ভুল।যা বস্তুতই ভুল জাতীয় সংগীত।

বিজেপি নেতা-নেত্রীদের গাওয়া সেই জাতীয় সংগীতের ভিডিওটি পোস্ট করে ভুল জায়গাটি ধরিয়ে দেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জী।

যেখানে গানের শেষভাগে ‘জনগণ মঙ্গলদায়ক…’এর পরিবর্তে ‘জনগণমন অধিনায়ক’ শব্দগুলি ভেসে আসে।সেই ভিডিও পোস্ট করে তীব্র আক্রমণ শানান অভিষেক।

তিনি লেখেন, “যাঁরা জাতীয়তাবাদ আর দেশপ্রেম নিয়ে কথা বলেন, তাঁরা আমাদের দেশের জাতীয় সংগীতটাও সঠিকভাবে গাইতে পারেন না। এই দলই আবার দেশকে গর্বিত করার কথা বলে। এই ‘দেশবিরোধী’ কাজের জন্য নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ ও বিজেপি কি ক্ষমা চাইবে?”

এই ঘটনার পরেই নড়েচড়ে বসেছে রাজ্য বিজেপি।বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য দাবি করেছেন,’ওই ভিডিও টি সত্য না,সম্পূর্ণ জাল ভিডিও’,আমরা দলীয়ভাবে তদন্ত করে দেখবো,যদি সত্যি হয় আর কেউ এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকে,তাহলে তার শাস্তি হবে’।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?