Monday, March 1, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া জঙ্গল ছেড়ে ফসলের ক্ষেতে হাতির দল, গ্রামবাসীদের তাড়ায় পুনরায় ফিরলো জঙ্গলে।

জঙ্গল ছেড়ে ফসলের ক্ষেতে হাতির দল, গ্রামবাসীদের তাড়ায় পুনরায় ফিরলো জঙ্গলে।

ভর দুপুরে হাতির হানা, তাড়া খেয়ে জাতীয় সড়কের উপর দিয়ে ছুটল দলছুট দাঁতাল।

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ বাঁকুড়া জেলায় হাতির সমস্যা নতুন নয়, বিগত কয়েক দশক ধরে হাতির সমস্যায় জর্জরিত জেলাবাসী। কখনো মানুষের প্রাণহানি তো কখনো বা ফসলের ক্ষয়ক্ষতি। এই দৃশ্য  নিত্যনৈমিত্তিক হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে বাঁকুড়া জেলার মেজিয়া, গঙ্গাজলঘাটি, বেলিয়াতোড়, বড়জোড়া সহ এমন একাধিক গ্রামে দলছুট হাতির হানায় কার্যত রাতের ঘুম উড়েছে।চলতি মাসেই এই নিয়ে দু-বার গ্রামে হাতির হানার ঘটনা ঘটলো।

আচমকা হাতির হানায় বাঁকুড়ার বিভিন্ন ব্লক বেশ ক্ষতিগ্রস্ত। আজ ভরদুপুরে একটি দলছুট দাঁতাল মেজিয়া ব্লকের বিভিন্ন প্রান্তে চসে বেড়াল। নন্দনপুর মোড় এলাকায় কারো ফসলের জমিতে হানা দেয়,আবার কখনো বা কোনো চাষীর খামারের মজুত করা ধান খেয়ে লোকালয়ে ঘুরে বেড়ালো এই দলছুট দাঁতাল।
যার জেরে তিতিবিরক্ত হয়েউঠেছে গ্রামের মানুষ।বনদপ্তরকেও একাধিক বার জানিয়ে কোনো ফল হয়নি।বনদপ্তর কার্যত চাষের ক্ষতি নিয়ে উদাসীন।

অবশেষে নিজেদের ফসল বাঁচাতে এদিন গ্রামবাসীরা নিজেরাই সচেষ্ট হলেন।দলবেঁধে গ্রামথেকে ছুটে যায় কৃষকরা।একত্রিত গ্রামবাসীদের তাড়া খেয়ে জাতীয় সড়কের উপর দিয়েই ছুটে পালালো দলছুট দাঁতালের দল।

ব্যাতিক্রম হয়নি এদিন ও।গ্রামে দাঁতালের উপদ্রবের খবর দেওয়া হয় কৃষকদের পক্ষ থেকে,কিন্তু সেই হাতিকে তাড়াতে কোন উদ্যোগ দেখা পডলো না বনদপ্তরের। কবে জেলাবাসী এই হাতির সমস্যা থেকে নিস্তার পাবে সেই আশাতেই দিন গুনছেন তারা।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?