Saturday, May 15, 2021
Home খেলা ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ,স্মৃতি ইরানির বিরুদ্ধে মামলা আন্তর্জাতিক শ্যুটারের।

ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ,স্মৃতি ইরানির বিরুদ্ধে মামলা আন্তর্জাতিক শ্যুটারের।

ঘুষ চেয়ে বিতর্কে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি।

বিতর্ক যেন তার চিরদিনের সঙ্গী।শিক্ষাক্ষেত্রে নথি দুর্নীতির বিতর্কের পর এবার ‘ঘুষ’ কেলেঙ্কারিতে নাম জোরালো স্মৃতি ইরানির।এবার তার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন আন্তর্জাতিক মানের শ্যুটার বর্তিকা সিং। বর্তিকার অভিযোগ, স্মৃতি ইরানি এবং তাঁর দুই সহযোগী তাঁকে জাতীয় মহিলা কমিশনের ‘পদ’ পাইয়ে দেওয়ার জন্য মোটা অঙ্কের ঘুষ চেয়েছেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব এবং আরেক ঘনিষ্ঠ ব্যক্তির বিরুদ্ধেও মামলা দায়ের করেছেন বর্তিকা । যদিও, ওই শ্যুটারের সব দাবি খারিজ করে তাঁর বিরুদ্ধে পালটা মানহানির মামলা করেছেন স্মৃতির সচিব বিজয় গুপ্তা।

শ্যুটার বর্তিকা সিংয়ের অভিযোগ, জাতীয় মহিলা কমিশনের সদস্যপদ পাইয়ে দেওয়ার জন্য স্মৃতি ইরানি এবং তাঁর দুই ঘনিষ্ঠ তাঁর কাছে প্রথমে এক কোটি টাকা চান। তিনি ওই টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় চাহিদা কমিয়ে ২৫ লক্ষ টাকা করেন স্মৃতির দুই ঘনিষ্ঠ।এছাড়াও বর্তিকার অভিযোগ, টাকা নেওয়ার জন্য তাঁকে কেন্দ্রীয় মহিলা কমিশনের নামে একটি ভুয়ো চিঠিও দিয়েছিলেন স্মৃতি ইরানি ঘনিষ্ঠরা। কিন্তু টাকা দিতে না চাওয়াই ওই দুই ব্যক্তি তাঁর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। আগামী ২ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলার শুনানি হবে এমপি-এমএলএ কোর্টে।

অপরদিকে এর পাল্টা দাবি এসেছে স্মৃতি শিবির থেকেও। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সচিব বিজয় গুপ্তার অভিযোগ, ওই শ্যুটার তাঁদের বদনাম করার জন্য ভুয়ো অভিযোগ করছেন। অনেক আগেই ওই শ্যুটারের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছিলেন তাঁরা। বস্তুত, বর্তিকা সিংয়ের বিরুদ্ধে গত ২৩ নভেম্বর আমেঠির মুসাফিরখানা থানায় একটি মানহানির মামলা দায়ের করেন বিজয়। তাঁর দাবি ছিল, ভুয়ো অভিযোগ এনে বর্তিকা সিং তাঁর সম্মানহানি করার চেষ্টা করছেন। স্মৃতি ইরানির ঘনিষ্ঠর ওই অভিযোগ অস্বীকার করে বর্তিকা সিং আবার পালটা দাবি করেছেন, স্মৃতির ‘দুর্নীতি’র তথ্য ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দেওয়ার জন্যই তাঁর বিরুদ্ধে এই মিথ্যে মামলা সাজানো হয়েছে।

তবে অভিযোগ ও পাল্টা অভিযোগের এই খেলায় এই মুহূর্তে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে স্মৃতি। কারণ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থাকাকালীন এখনও পর্যন্ত তাঁর বিরুদ্ধে সরাসরি দুর্নীতির কোনও অভিযোগ আসেনি। তবে মন্ত্রী হওয়ার সময় শিক্ষার জাল নথি নিয়েও কম বিতর্কের জড়াননি তিনি।কিন্তু তা থেকে মুক্তি পেতে না পেতেই আবার নতুন বিতর্কে স্মৃতি।স্বাভাবিকভাবেই, আমেঠির সাংসদ দ্রুত এই অভিযোগ থেকে মুক্তি পেতে চাইবেন।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?