Monday, March 1, 2021
Home রাজ্য কলকাতায় রঙিন ট্রাম,রুটের বিভাগে রঙের ব্যবহার।

কলকাতায় রঙিন ট্রাম,রুটের বিভাগে রঙের ব্যবহার।

কলকাতার ট্রামে এবার রঙের ছোয়া, নীল-হলুদ-গোলাপি-লাল রঙে চেনা যাবে ট্রামের রুট।

নিজস্ব প্রতিনিধি:কোন ট্রাম কোথায় যাবে সে নিয়ে সমস্ত আশঙ্কার দিন শেষ।কলকাতার ট্রাম রুটে এবার রঙের ছোয়া।কলকাতার ট্রামেও এবার নীল-হলুদ-গোলাপি রঙে চেনা যাবে ট্রামের রুট।প্রতিটি রুট কে বিশেষ রঙে বিভক্ত করা হচ্ছে।

গোলাপি লাইন।

এই রুটের ট্রামের পরিচয় ২৪/২৯ নাম্বারে। বালিগঞ্জ থেকে টালিগঞ্জের মধ্যে চলে এই ট্রাম। এই রুটে উল্লেখযোগ্য স্টপেজ হল টলি ক্লাব, ভবানী সিনেমা, টালিগঞ্জ পুলিশ স্টেশন, লেক মার্কেট, দেশপ্রিয় পার্ক, হিন্দুস্থান পার্ক হয়ে গড়িয়াহাট মল। এই সব এলাকা বলে দক্ষিণ কলকাতার আইকনিক রুট বাছাই করা হয়েছে গোলাপি রঙে।

হলুদ লাইন।

এই লাইন পরিচিত ২৫ নম্বর রুট হিসাবে। এই রুট ব্যস্ত রুট হিসাবে পরিচিত। গড়িয়াহাট থেকে এসপ্ল্যানেড অবধি চলে এই ট্রাম। আইস স্কেটিং রিঙ্ক, কোয়েস্ট মল, নোনাপুকুর, রিপন স্ট্রিট, মুসলিম ইন্সটিটিউট, ওয়েলিংটন ক্রসিং, চাঁদনী চক হয়ে এসপ্ল্যানেড অবধি চলে এই ট্রাম। 

লাল লাইন।

রুট নাম্বার ৫ হিসাবে পরিচিত। এই রুট অন্যতম ব্যস্ততম একটি রুট। যা এসপ্ল্যানেড থেকে বো ব্যারাক ছুঁয়ে বউবাজার, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ স্ট্রিট, হাতি বাগান হয়ে শ্যামবাজার অবধি চলে।

বেগুনি লাইন।

রুট নাম্বার হিসাবে ১৮ বলে পরিচিত। এই লাইন বাজার এলাকা ধরে ছুটে চলে।এই লাইন প্রধানত বইপাড়া লাইন বলেই পরিচিত হচ্ছে।
হাওড়া ব্রিজ থেকে শুরু হয়ে এই ট্রাম ছোটে চিৎপুর ক্রসিং, এমজি রোড, কলেজ স্ট্রিট, শিয়ালদহ হয়ে যায় রাজাবাজার ডিপো অবধি। এই লাইনে পুরনো মিষ্টির দোকান, সিনেমা হল রয়েছে। 

সবুজ লাইন।

১১ নম্বর রুট হিসাবে পরিচিত। এই ট্রাম রুট হাওড়া ব্রিজ থেকে শ্যামবাজার অবধি ছুটে চলে। এই ট্রাম রুট ছুঁয়ে যায় চিৎপুর, সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, বিদ্যাসাগর কলেজ, স্কটিশ কলেজ, হাতি বাগান হয়ে শ্যামবাজার অবধি যায়।

নীল লাইন।

রুট নাম্বার ৩৬ হিসাবে পরিচিত। এই রুট কলকাতার সবচেয়ে দর্শনীয় বা ভালো লাগার রুট। যা এসপ্ল্যানেড  থেকে খিদিরপুর অবধি। এসপ্ল্যানেড থেকে মেয়ো রোড, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল, ফোর্ট উইলিয়াম, রেস কোর্স, ফ্যান্সি মার্কেট হয়ে খিদিরপুর অবধি যাবে।

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?