Friday, October 22, 2021
Home রাজ্য পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া করোনা সংক্রমনের হার ফের ঊর্ধ্বমুখী।

করোনা সংক্রমনের হার ফের ঊর্ধ্বমুখী।

দেশ জুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে।

সুইটি মন্ডল: করোনা সংক্রমনের হার ফের ঊর্ধ্বমুখী। দেশ জুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে। এই অবস্থায় অতি সতর্কতা হিসেবে সাধারণ পর্যটকদের জন্য মন্দির নগরী বিষ্ণুপুর মন্দিরের দরজা বন্ধ করলো আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইণ্ডিয়া।

কেন্দ্রীয় সংস্থার তরফে ডিরেক্টর (মোনুমেন্টস্) এন.কে পাঠক এক নির্দেশিকা জারি করে জানিয়েছেন, কোভিড পরিস্থিতিতে আর্কিওলজিক্যিল সার্ভে অফ ইণ্ডিয়ার তত্বাবধানে থাকা সমস্ত মন্দিরে পর্যটকদের প্রবেশ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। নতুন নির্দেশিকা জারি না হওয়া পর্যন্ত এই আদেশ চলতি বছরের ১৫ মে পর্যন্ত বলবৎ থাকবে বলেও জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মল্লরাজাদের এক সময়ের রাজধানী, মন্দির নগরী হিসেবে পরিচিত বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে সারা বছর দেশ বিদেশ থেকে অসংখ্য পর্যটক এখানে ছুটে আসেন। রাসমঞ্চ, জোড় বাংলো মন্দির , দলমাদল কামান, শ্যামরায় মন্দির, মদনমোহন মন্দির, দেবী মৃন্ময়ীর মন্দির সহ অসংখ্য টেরাকোটার কারুকাজ সমৃদ্ধ অসংখ্য প্রাচীণ মন্দির এখানে রয়েছে।

মন্দির পরিদর্শণে পর্যটকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ হওয়ার ফলে চরম সমস্যায় স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। সরমা পাত্র নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, “একমাস কোন পর্যটক আসবেনা, ব্যাবসা থেকে আমাদের সব চলে, ছেলে মেয়েদের পড়াশোনা, সংসার চালানো সব এই দোকান থেকে। কি করে চলবে জানিনা।” ফের বন্ধের নির্দেশিকায় তারা নতুন করে সমস্যায় পড়লেন বলে তিনি জানান।

স্থানীয় টোটচালক চন্দন পাল জানান, “বাইরে থেকে পর্যটক আসা বন্ধ হয়ে যাওয়া মানে আমাদের পুরোপুরি অসুবিধা। করোনার জেরে সাধারণ মানুষ টোটোতে উটতে চাই না ফলে সংকটে পরেছি। টোটো চালিয়ে আমাদের জীবিকা চলে।টোটো চালিয়ে আমাদের সংসার চলে। ফলে কর্ম বন্ধ হয়েগেলে সংসারে অর্থনৈতিক টান পরবেই।”

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

× How can I help you?